চাঁদও যদি মামা হয়, সূর্যিও যদি মামা হয় তাইলে কেমনে কি? একটার তো চাচা/কাকা হওয়া লাগবো… ! আর মামা-চাচা কেন ? মামী-চাচীও তো হইতে পারে, ম্যান…! অইযে, সূর্যি-চাচী উঠতাছে দেখো দেখো… !

মাঝে মাঝে রাত’কে আমরা কাছে ,
দেইনা আসতে । দিন থাকে আমাদের
অনেক দূরে ।। অবাক হয়ে চন্দ্র-সূর্য
ভেবে পায়না কি করে !! মাঝে মাঝে…
শেষ হয়না রাত । একটা একটা আলো নিভে ।
তারা’রা পারছেনা আর , জানায় খোলা মনের বিদায় !
এই হেলায়-খেলায় মত্ব তাদের জানালারা !
তসবিহ গোনা ঘর নিষ্পাপ শ্রান্ত হয়ে খোদার নামে ঘুম করে… ইবাদাত শেষ । সজাগ সব দুরাচারী’রা ।
দিনের ওঁনারা ব্যাস্ত এখন দুই কাঁধের দুইজন থাকে , দেখে – দেখে স্রষ্টার সৃষ্টি এরা কত্তভাবে কত্ত নদীতে ঝাপ মারে ৷।

বৃদ্ধ গালিরা…

গালি জিনিসটা গানের মতই স্যাটিস্ফাইং ব্যাপার । ভদ্র সমাজের ইংলিশ গালির পেছনে বাংলা গালির ঐতিহ্য রক্ষা করা হয়নাই । বাপ – দাদা – পরদাদা – তাঁর পরেরো অনেক অনেক দাদা, সবাই ই এই জিনিস নিজেরা দিছে বা আশে পাশে শুনছে । নিজে না দিলেও মনে মনে কেউরে নিয়া গালি ভাবছে । কিন্তু অইযে ! দিন শেষে, গালি পালক সন্তানের মতই কোন না কোন সময় আদরের অভাবে পালায় গেছে। তখন আসছে নতুনদের কাছ থেকে নতুন গালি !

আমরা বাংগালী’রা আবার আমাদের অতীত অস্বীকার কইরা যাইতে তো ভালবাসি বাসি’ই ! এরপরে হুদ্দাই অইটা ঘৃণা করতেও কেন যেন ভালবাসি !

আজ কত কত বৃদ্ধ গালিরা আমাদের আশেপাশে বেওয়ারিশ হিসাবে মনে কষ্ট নিয়া ঘুইরা বেড়াইতাছে…

ও বিঃ দ্রঃ হইল, আমিও ভালভাসি, “আমি আমার পালক বন্ধু-বান্ধবদের গালিগালাজ করতে ভালবাসি !

.
.
.

  • #BONGCHiNTON

নাই হওয়া

মৃত্যু মানে কি চইলা যাওয়া, নাকি ‘নাই হয়া থাকা’ ? নাই হয়া থাকার মদ্ধে কিন্তু আলাদা মজা !! আস্তে আস্তে কেউ আর মনে রাখেনা, তবে কেউ ভুলতেও পারেনা… 😆

শুধু এইবার ‘নাই হইলে” আর আশা যায় না ।।

আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবস

সরকার থেকে আজকে, ‘আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবস’ এর আহবানের মেসেজ পাইলাম ফোনে । এরপর থেকা মাদক জিনিসটা আজকে ‘জীবনের প্রথম আমার একটু ট্রাই কইরা দেখতে ইচ্ছা কত্তাছে ।

নাহ ! ছিঃ ছিঃ আজকে ওই বিশেষ দিনে অন্তত আমরা নেশা-টেশা না করি ভাইয়েরা ! ওহো সরি ! মেয়েরা আবার বলবে তাদের কেন বাদ দিলাম । নেশাখোর ভাই-বইনেরা “আজকে নেশা না করি”

আমার এই কথা শুইনা একজন নেশাখোর বললঃ ” হুহ ‘আজকে নেশা না করি ! আপনে না করলে না করেন ! আমারে বলেন কেন… ? “

বুলি’ইং ( Bullying )

বুলি’ইং ( Bullying ) একটি ভয়াবহ অপরাধ ।

অথচ , সরকার সবচেয়ে বড় বুলি ( Bully ) । শিক্ষক – শিক্ষিকারা সবচেয়ে বড় বুলি । ধর্ম সবচেয়ে বড় বুলি । এরা প্রত্যেকেই মানুষকে নির্দিষ্ট একটা ছাচে বা নিয়মের মদ্ধে থাকার কথা বলে । আর তাদের মতন না হইলে, তাদের বলা নিয়ম না মানলেই অন্য রকম মানুষটাকে ( আসলে নিজের মতন থাকতে চাওয়া মানুষটাকে ) শাস্তি – ভয়ভীতি অথবা নাজেহাল অই তারা’ই করে ।

ভাই, আমি বাংলাদেশের কথা বলি নাই । পুরা দুনিয়ার কথা বলছি । সো NO চেতাচেতি ! আর সরকার – শিক্ষক – ধর্ম… এদের সবাইকে’ই আমি সম্মান করি , মানি ( অবশ্যই আমার যা মানা উচিত মনে হয়, তা’ই মানি 🤪 ) । কিন্তু এদের সব জায়গায়’ই নিয়ম’টা অনেক ঠিকঠাক করা দরকার… মানে ইয়ে, তা’ই বলতে চাইছি আরকি ।।

তবে বিশ্বাস কর…

মনে চায়, রবি ঠাকুর – কবি নজরুল অথবা,
নির্মলেন্দু গুন সাহেব’দের থেকেও
সুন্দর – ভাল – মন জুড়ানো কিছু কথা তোমায়
এক্ষুনি অনেক অনেক লেখি !
পারিনা হায় ! তবে বিশ্বাস কর,
তাঁদের বলা কথার থেকেও অনেক ভাল
আর সুন্দর করে ভালবাসার স্বপ্ন আমি,
তোমাকে – আমাকে নিয়ে দেখি…

কর্কট শহর

তোমার “কর্কট শহর” তুমিই রাখো,
কাঁকড়া হয়ে আঁকড়ে থাকো ।।
অস্পষ্ট নিষ্প্রতিভ খন্ড খন্ড,
অসহ্য অস্ফুট তমসাচ্ছন্ন !
থাকলেও বুকের মাঝে ক্যান্সার ।
আমার জগতের ইহাই নিরবিচ্ছিন্ন আলো…

কে তুমি ?

তুমি তো সেদিন  
ঘুমিয়ে ছিলে। শান্ত ছিল, 
সব সব সব… 
আবহ ছিল ঠিক 
বৃষ্টি হওয়ার পরের মত ! 

পল্লী মাটির ঘ্রাণ ।। পেয়েছিলাম  
এই ফর্মালিন যুক্ত শহরেই 
শীতে যখন তুমি এক হাত মুঠি 
করে জড়িয়ে ধরেছিলে ।  
“আমার” 

বলেছিলে, তুমি “নিষ্ঠুর”। 
যাতে আতঙ্কিত আমি আগেও ছিলাম । 
তবুও অলৌকিকের আশা ! 
গল্পতেই যা হতেই পারে, সত্যতে না… 
যাই হোক, তা তো আমারই ছিল। 

তুমি কে ? হাহ…. 

সম্পূর্ণ রংগিন

তখন আমাদের একটা সাদা-কালো টিভি ছিল। বিটিভি’তে ( বিটিভি’ই তো ছিল, নাকি ইটিভি? 🤔 ) একটা নাটক সম্প্রচার হওয়ার বিজ্ঞাপন দিতাছিল । নাটকের নাম “সম্পূর্ণ রংগিন নাটক” এতটা বাজে প্রচার হইব ।

আমি বুঝি নাই, ভাবছিলাম নাটক এইটা সাদা-কালো টিভিতেও রংগিন’ই দেখা যাইব। অনেক অপেক্ষার পর নির্দিষ্ট টাইমে টিভি ছাইরা মন অল্প হইলেও ভাইংগা গেছিল…

সাদা-কালো টিভিটা ছিল আমাগো প্রথম টিভি। আর আসলে অইটা আমগোও ছিলনা । আমাদের মিল এর দাড়োয়ান নাকি কে যেন, চুরি কইরা ভাইগা গেছিল কিন্তু টিভি রাইখা গেছিল সে । অনেকদিন পরেও টিভির মালিক না ফেরাতে বাসায় নিয়া আসা হইছিল উহা রাইখা ভাইগা যাওয়া ব্যক্তির ঘর থেকা ।